সোমবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সোমবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সোমবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

শরীয়তপুর সদর পৌরসভা নির্বাচনে ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী পান্না খানের ব্যাপক প্রচার প্রচারণা।

শরীয়তপুর সদর পৌরসভা নির্বাচনে ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী পান্না খানের ব্যাপক প্রচার প্রচারণা।

শরীয়তপুর সদর পৌরসভা নির্বাচনে ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও একাধিকবার ওয়ার্ড কমিশনার মরহুম ইউনুস আলী খানের কনিষ্ঠ কন্যা,তরুন সমাজসেবী ৭ ৮ ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী পান্না খান জয়ের লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন ৷ তিনি চশমা প্রতীক নিয়ে দিনরাত মানুষের দ্বারে-দ্বারে গিয়ে তাদের মূল্যবান ভোট প্রার্থনা করছেন।

শরীয়তপুর পৌরসভার ৭ ৮ ৯ নং ওয়ার্ডের ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানা যায়,বর্তমানে যে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর রয়েছেন তিনি এলাকার উন্নয়নের জন্য কোন কাজই করেননি।এমনটাই অভিযোগ স্থানীয় ভোটারদের। তাই তারা সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান পান্না খান’কে সমর্থন দিয়েছেন। কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে পান্না খান একজন ভাল মানুষ। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করে আসছেন। তার উন্নয়ন কর্মকান্ডকে আরও তারন্বিত করতে এবার তারা পান্না খান’কে নির্বাচিত করতে চান।এই বিষয়ে ৭ ৮ ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী পান্না খানের সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন-আমার বাবা মরহুম ইউনূস আলী খান ছিলেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আওয়ামীলীগ কর্মি ৷ সেই ধারাবাহিকতায় আওয়ামীলীগ আমার রক্তে মিসে গেছে ৷ আমি বিগত দিনগুলোতে সুখে দুঃখে মানুষের পাশে ছিলাম। আমি সকল শ্রেণীর মানুষের সাথে চলাফেরা করেছি। তাদের চাওয়া পাওয়া কি তা আমি বুঝতে পারি। তাই এবার তারা আমাকে তাদের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চায়। তাদের জন্যই মূলত আমি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করছি। আমার প্রতীক হচ্ছে চশমা। চশমা মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে জয়যুক্ত করলে আমি ৭ ৮ ৯ নং ওয়ার্ডের যাবতীয় সমস্যা সমাধান সহ সকল প্রকার উন্নয়ণমূলক কাজ করব, ইনশাআল্লাহ ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য